IPL 2022 Exclusive: Kuldeep Yadav Happy To Win Match For DC Against KKR, Childhood Coach Kapil Pandey Tells ABP Live

0

[ad_1]

কলকাতা: এবারের আইপিএলে (IPL) যেন পুনর্জন্ম হয়েছে কুলদীপ যাদবের (Kuldeep Yadav)।

ম্যাচের সেরা

৪ ম্যাচে ১০ উইকেট। পার্পল ক্যাপ জেতার দৌড়ে রয়েছেন কুলদীপ। রবিবার ৪ উইকেট নিয়ে কলকাতা নাইট রাইডার্স ব্যাটিংয়ের কোমর ভেঙে দিয়েছেন। সেই কেকেআর, যে দলে টানা উপেক্ষিত হতে হতে এক সময় মানসিক অবসাদে ভুগতে শুরু করেছিলেন বিরল চায়নাম্যান স্পিনের পূজারি। রবিবার নাইটদের বিরুদ্ধে বাড়তি আগুন নিয়ে নেমেছিলেন। নিজের বলে উমেশ যাদবের উঁচু ক্যাচ অবিশ্বাস্য ক্ষিপ্রতায় নেওয়ার পর কুলদীপের হুঙ্কারে যেন ছিল জবাব দেওয়ার প্রতিচ্ছবি। ম্যাচের সেরাও হয়েছেন তিনি।

গর্বিত কোচ

ছাত্রের সাফল্যে উচ্ছ্বসিত কুলদীপের শৈশবের কোচ কপিল পাণ্ডে (Kapil Pandey)। কানপুরে যাঁর হাত ধরে কুলদীপের উত্থান। ফোনে এবিপি লাইভকে কপিল বললেন, ‘লাগাতার ভাল বল করছিল। যে দল সুযোগ দিচ্ছিল না, সেই কলকাতা নাইট রাইডার্সের বিরুদ্ধে নিজেকে প্রমাণ করার সুযোগ পেয়েছিল। কাজে লাগিয়েছে।’

বাড়তি তাগিদ

কেকেআর ম্যাচের আগে থেকেই যেন ফুটছিলেন কুলদীপ। কপিল বলছেন, ‘ম্যাচের আগে আমাকে ফোন করেছিল। বলেছিল, স্যার কাল ম্যাচ। বলেছিলাম, সাধারণ ম্যাচ হিসাবেই দেখো। ঠাণ্ডা মাথায় বল করো। ব্যাটার দেখে বল করো। সেই মতোই বল করেছে। ৪ উইকেট নিয়ে নিজেকে প্রমাণ করেছে।’

অবজ্ঞার জবাব

কেকেআরের বিরুদ্ধে ম্যাচ জেতানো পারফরম্যান্সের পর কুলদীপের সঙ্গে কথা হয়েছে? কপিল বলছেন, ‘হয়েছে। ও ভীষণ খুশি। আমাকে বলল, স্যার পারফরম্যান্সেই সব জবাব দিলাম। ব্রেন্ডন ম্যাকালাম, অভিষেক নায়ার বা টিম ম্যানেজমেন্টকে আলাদা করে কিছু বলার দরকার হয়নি।’ কপিল যোগ করলেন, ‘ওর চোট লেগেছিল। অস্ত্রোপচার করাতে হয়েছিল। তবে যথেষ্ট প্রস্তুতি নিয়ে মাঠে নেমেছিল। আত্মবিশ্বাসী ছিল। ভেতর ভেতর ফুটছিল।’

কপিল আরও বললেন, ‘কেকেআর যেদিন রিটেন না করে ওকে ছেড়ে দিয়েছিল, আমরা ভীষণ খুশি হয়েছিলাম। কুলদীপও খুশি হয়েছিল। কারণ আমাদের মনে হয়েছিল, কুলদীপ যেন কলকাতা নাইট রাইডার্স শিবিরে চাকর। ওকে খেলানো না হলে ছেড়ে দেওয়াটাই শ্রেয়। তাতে ও অন্য দলে খেলার সুযোগ পাবে। না খেলে খেলে ওর ন্যূনতম মূল্য ২ কোটিতে দাঁড়িয়েছিল। যে ছেলের দাম ছিল ৬ কোটি টাকা, যার ৯-১০ কোটি টাকা পাওয়া উচিত, সে কি না ২ কোটি দাম পেয়েছে। কেকেআরে থেকে আর্থিক দিক থেকেও ক্ষতি হয়েছে কুলদীপের। ওকে সুযোগই দেয়নি। আমি ওকে বলেছিলাম, নিলামে কম দাম পেলেও ক্ষতি নেই। খেলতে হবে। ক্রিকেট খেলার জন্য এত পরিশ্রম। শুধু রোজগারের জন্য নয়। অর্থ পরে। আগে দেশের হয়ে খেলতে হবে। ও ছটফট করছিল নিজেকে নতুন করে চেনানোর জন্য।’

দলের সমর্থন

কপিল বলছেন, ‘এভাবেই বল করে যেতে চায় কুলদীপ। কোচ রিকি পন্টিং, অধিনায়ক ঋষভ পন্থ ওকে সমর্থন করেছে। পুরো দলই পাশে রয়েছে। পাশাপাশি বলব রোহিত শর্মার কথা। ওর জন্যই পুনর্জন্ম হয়েছে কুলদীপের। যেভাবে চোট সারিয়ে ফেরার পর ওকে জাতীয় দলে ফিরিয়ে এনেছিল, উৎসাহ দিয়েছে, রোহিতের কথা আলাদা করে বলতেই হবে।’ উমেশের ক্যাচ ধরে কুলদীপের হুঙ্কার নিয়ে চর্চা চলছে। কপিল বলছেন, ‘ভাল ক্যাচ ধরলে সবাই উত্তেজিত থাকে।কুলদীপও সেলিব্রেট করেছে।’

আরও পড়ুন: আউট নন, আহতও নন, তাও হঠাৎই ডাগআউটের দিকে হাঁটা! অশ্বিনের সিদ্ধান্ত নিয়ে শোরগোল

[ad_2]
Source link

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here