IPL 2022 Exclusive: Punjab Kings Speed Star Sandeep Sharma Vows To Play Fearless Cricket In IPL

0

[ad_1]

কলকাতা: আইপিএলে (IPL) ফাইনালে উঠেও ট্রফির স্পর্শ পায়নি। ভাগ্য বদলের জন্য এবার ঢেলে দল সাজিয়েছে পাঞ্জাব কিংস (Punjab Kings)। নিলাম থেকে নেওয়া হয়েছে এক ঝাঁক নতুন মুখ। দলের অধিনায়কও বদলে ফেলা হয়েছে। এবারের আইপিএলের প্রথম ম্যাচে শক্তিশালী রয়্যাল চ্যালেঞ্জার্স ব্যাঙ্গালোরের (RCB) বিরুদ্ধে ২০৫ রান তাড়া করে জয় ছিনিয়ে নিয়েছে পাঞ্জাব। শুক্রবার প্রীতি জিন্টার দলের সামনে শাহরুখের কলকাতা নাইট রাইডার্স (KKR)। সেই ম্যাচের আগে এবিপি লাইভকে দেওয়া একান্ত সাক্ষাৎকারে পাঞ্জাবের অন্যতম সেরা পেস-অস্ত্র সন্দীপ শর্মা (Sandeep Sharma) জানিয়ে দিলেন, কোন মন্ত্রে এগিয়ে চলেছেন তাঁরা।

ছন্দ ধরে রাখতে মরিয়া

সন্দীপ বলছেন, ‘আরসিবিকে হারানোর পরে দলের সকলে ইতিবাচক। যে কোনও টুর্নামেন্টের প্রথম ম্যাচ সব সময় গুরুত্বপূর্ণ হয়। ছন্দ তৈরি করার জন্য প্রথম ম্যাচের দিকে সকলের নজর থাকে। প্রথম ম্যাচে পাওয়া ছন্দ গোটা টুর্নামেন্টে বজায় রাখতে চাই।’

পাঞ্জাবে প্রত্যাবর্তন

সন্দীপের কথায়, ‘চার বছর পর পাঞ্জাব কিংসে খেললাম। মাঝের চার বছর সানরাইজার্স হায়দরাবাদে খেলেছি। তার আগে পাঁচ বছর ছিলাম পাঞ্জাব। এখন কোচ বদলে গিয়েছে। অনিল স্যারের কাছে অনেক কিছু শিখতে পারব। উনি একজন কিংবদন্তি। বিশ্বের দারুণ সমস্ত ক্রিকেটার রয়েছে দলে। ম্যানেজমেন্টও সকলকে স্বস্তি দেওয়ার জন্য করণীয় সব কিছুই করছে। লম্বা টুর্নামেন্টে জৈব সুরক্ষা বলয়ে ভাল থাকাটাও জরুরি। সকলেই নিজের সেরাটা দিচ্ছে।’

ক্যাপ্টেন ময়ঙ্ক

‘ময়ঙ্ককে দীর্ঘদিন চিনি। একসঙ্গে প্রচুর ম্যাচ খেলেছি। ২০১০ সালে বিশ্বকাপ খেলেছিলাম। দারুণ ক্রিকেটার। যা অর্জন করেছে, নিজের দক্ষতায়। আইপিএলে নেতৃত্ব দেওয়া সহজ নয়। তবে প্রথম ম্যাচে সব বোলারকে স্বাধীনতা দিয়েছে। বোলারদের কাছে ক্যাপ্টেনের থেকে এই সমর্থন বিরাট ব্যাপার। আগের ম্যাচে দুশো তাড়া করার সময়ও আগ্রাসী ছিল। ইতিবাচক ছিল,’ বলছিলেন সন্দীপ।

ডাকাবুকো ক্রিকেট!

সন্দীপ বলছেন, ‘টি-টোয়েন্টি ক্রিকেট ভয়ডরহীনভাবে খেলতেই হয়। ব্য়াটিং হোক বা বোলিং, ডাকাবুকো খেলতেই হবে। আমাদের দলে প্রতিভা রয়েছে। শিখর পাজি (শিখর ধবন), ময়ঙ্কের মতো অভিজ্ঞরা রয়েছে। ওডিয়েন স্মিথ, লিয়াম লিভিংস্টোনের মতো আকর্ষক ক্রিকেটার রয়েছে। ওরা ভয়ডরহীন ক্রিকেট খেলে। আন্তর্জাতিক ক্রিকেটেও ওরা এরকমই খেলে। ফলাফলের কথা  না ভেবে নিজের ক্রিকেটটা খেলাই গুরুত্বপূর্ণ। আমাদের দলে সকলেই এভাবে খেলে। মুম্বইয়ের উইকেটের গতি ও বাউন্স আমাদের দলের ক্রিকেটারদের জন্য খুব মানানসই।’

কোচ কুম্বলে

পাঞ্জাবের কিংবদন্তি কোচকে নিয়ে সন্দীপ বলছেন, ‘কুম্বলে স্যার দলে একটা শান্ত ভাব এনেছেন। তিন সপ্তাহ কাটিয়েছি মাত্র ওঁর সঙ্গে। আগের ম্যাচে বড় রানের খেলা হলেও উনি বারবার বলছিলেন, চিন্তা কোরো না। টি-টোয়েন্টি ক্রিকেটে এরকম ম্যাচ হয়। এই শান্ত, সংযত থাকতে পারাটা গুরুত্বপূর্ণ। পাশাপাশি উনি আগ্রাসী ক্রিকেট খেলার উৎসাহ দেন। যদি ম্যাচের প্রথম বল ছয় মারার মতো হয়, তাহলে ছক্কা মারার কথাই বলছেন ব্যাটারদের।’

অভিজ্ঞতা ও তারুণ্য

সন্দীপ বলছেন, ‘এ বছর আমাদের দলটা ভাল। অভিজ্ঞতা ও তারুণ্যের দারুণ সংমিশ্রন। শুধু ম্য়াচে পরিকল্পনাগুলো কাজে লাগাতে হবে। লম্বা টুর্নামেন্ট। এখনই ট্রফির কথা ভাবছি না। একটা একটা করে ম্যাচ ধরে এগোচ্ছি। আগের ম্যাচে জিতলেও ভালর পাশাপাশি কিছু দুর্বলতাও ধরা পড়েছে। সেগুলি কাটিয়ে উঠতে হবে। অনিল স্যারও সেটাই বলছেন। নিখুঁত ক্রিকেট খেলতে হবে। ফল নয়, পদ্ধতিটাই আসল।’

নাইট বধের হুঁশিয়ারি

সন্দীপ বলছেন, ‘আগের ম্যাচে আরসিবির মতো বড় দলকে হারিয়েছি। কেকেআরকে হারানোর ব্যাপারেও আশাবাদী।’

দেখুন সম্পূর্ণ ইন্টারভিউ: বড় দলকে হারিয়ে নামছি, কেকেআরকেও হারাব, হুঙ্কার পাঞ্জাব কিংসের তারকার

[ad_2]
Source link

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here